বৈদ্যুতিক বাইকে আগুন লাগলে তাৎক্ষণিক যা করবেন

প্রকাশিত: ১০:১১ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৬, ২০২৪

দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে বৈদ্যুতিক গাড়ি, বাইক, স্কুটার। জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধি এবং পরিবেশ রক্ষায় বৈদ্যুতিক যানের উপর জোর দেয় বিশ্বের সচেতন মহল। ধীরে ধীরে বিশ্বের সব দেশেই জনপ্রিয় হয়ে ওঠে বিদ্যুৎ চালিত এবং যানবাহনগুলো।

তবে বৈদ্যুতিক গাড়ি, বাইক, স্কুটার চালানোর সময় একটি ভয় সবার মধ্যেই থাকে। তা হচ্ছে যদি রাস্তার মাঝে স্কুটারে আগুন লেগে যায়! ব্যাটারিতে কোনো সমস্যার ফলে যদি বিস্ফোরণ হয়! এই ভয়টা হওয়া স্বাভাবিক। কারণ একটি ইলেকট্রিক স্কুটারে থাকে উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন ব্যাটারি প্যাক এবং ইলেকট্রিক মোটর।

জেনে নিন বৈদ্যুতিক বাইকে আগুন লাগলে তাৎক্ষণিক যা করবেন-

১. সঠিক পদ্ধতিতে চার্জ করুন
অতিরিক্ত চার্জিং করার ফলে ব্যাটারি গরম হয়ে যায় এবং বিস্ফোরণ হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। পাশাপাশি কোম্পানির পক্ষ থেকে যে ক্ষমতা সম্পন্ন চার্জিং ইউনিট দেওয়া হয়েছে সেটাই ব্যবহার করুন। থার্ড পার্টি চার্জার এড়িয়ে চলুন। এছাড়াও সারারাত কখনো ইলেকট্রিক স্কুটার বা বাইক চার্জিংয়ে বসিয়ে রাখবেন না।

২. প্রতিদিন টু হুইলারটি চেক করুন
বাইকের ব্যাটারি, ওয়্যার এবং অন্যান্য যন্ত্রাংশ চেক করুন। স্কুটারে কোনো রকম ত্রুটি রয়েছে কি না তা যাচাই করে তবেই সেটি চালানো উচিত। যদি কোনো ত্রুটি বা শর্ট সার্কিট থাকে তাহলে সেটি চালানো উচিত নয় এবং দ্রুত উপযুক্ত টেকনিশিয়ানের থেকে সারিয়ে নেওয়া উচিত।

৩. গাইডলাইন মেনে চলুন
প্রত্যেক কোম্পানি তাদের ইলেকট্রিক বাইকের জন্য নির্দিষ্ট গাইডলাইন প্রকাশ করে। যেমন চার্জিং টাইম, সর্বোচ্চ ওজন, গতি, সেফটি গিয়ার, ইত্যাদি। এই বিষয়গুলো সঠিকভাবে মেনে চলা উচিত। কারণ আপনার তরফ থেকে কোনো গাফিলতি থাকলে তার দায় কোম্পানি নেবে না।

৪. সেফটি গিয়ার
ইলেকট্রিক বাইক চালানোর সময় সর্বদা সেফটি গিয়ার মূলত হেলমেট পরা উচিত। প্রয়োজনে হাত, হাঁটু সুরক্ষিত রাখার জন্য আলাদা সেফটি গিয়ার নিতে পারেন। পাশাপাশি ট্রাফিক নিয়ম মেনে চলা উচিত।

৫. সঠিক জায়গায় স্কুটার পার্ক করুন
স্কুটার হোক বা মোটরসাইকেল সঠিক জায়গায় পার্ক করা উচিত। সর্বদা তাপ, আগুনের উৎস থেকে দূরে সরিয়ে শীতল এবং শুষ্ক জায়গায় স্টোর করুন। কোনো পেট্রোল বা দাহ্য পদার্থের সামনে বাইক রাখবেন না। এতে আগুন লাগার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া